বরপক্ষকে ওয়াসার পানির শরবত দেওয়ায় ভাঙল বিয়ে। - বালের কন্ঠ

বরপক্ষকে ওয়াসার পানির শরবত দেওয়ায় ভাঙল বিয়ে।

ওয়াসার পানি অভিশাপ হয়ে দাড়াল মিরপুরের এক বিবাহমঞ্চে। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক নাসরিন বানু এবং কেরামত আলীর দীর্ঘ ৪ বছরের সম্পর্কের সুন্দর একটা পরিণতি ঘটার কথা ছিল গতকাল বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হবার মাধ্যমে। কিন্তু আপত্তিকর ঘটনাটি ঘটল ওয়াসার পানিতে তৈরী শরবত নিয়ে।

গতকাল মেয়ের নিজ বাসার ছাদে বিবাহের আয়োজন করা হয়। বরযাত্রীরা যথা সময়ে বিবাহমঞ্চে উপস্থিত হন। কন্যাপক্ষ থেকে বরপক্ষ কে আপ্যায়ন এর জন্য প্রচন্ড গরমের কথা চিন্তা করে শুরুতেই নিজেদের বাসায় থাকা ওয়াসার পানি দিয়ে শরবত বানিয়ে দেন। বরপক্ষের সকলেই সাময়িক ভাবে খুবই খুশি ছিল শরবত পেয়ে। কিন্তু বিপত্তি ঘটল তখনই যখন হঠাৎ বরযাত্রী দের মধ্যে থেকে এক জন চিৎকার করে সকলের উদ্দেশ্য  বলে উঠে "এডি ওয়াসার পানিতে বানানো শরবত,  এতে ড্রেনের আবর্জনা দেখা যাইতেছে।" সবাই হতবুদ্ধি হয়ে নিজেদের শরবতের গ্লাস পর্যবেক্ষণ করে নিশ্চিত হয় এটা ওয়াসার পানির তৈরী শরবত।  তারা অনেকেই এতে ভাসমান অনেক আবর্জনা দেখতে পান বলে জানান।

মূহুর্তের মধ্যে কন্যাপক্ষের সাথে বরপক্ষের তর্ক গড়িয়ে যায় হাতাহাতি পর্যন্ত।  এতে কেও আহত না হলেও হাতাহাতির মধ্যে বরপক্ষের একজনের প্যান্টের চেইন ছিড়ে যাওয়ায় তিনি দেরী না করে  মান-সম্মান হানির মামলা ঠেলে দেন মিরপুর মডেল থানায়।

বরপক্ষ আর একমূহুর্ত বিয়ের মঞ্চে অপেক্ষা না করে বর সহ বেড়িয়ে আসে।  মেয়ের বাবার সাথে বালের কন্ঠ প্রতিনিধি কথা বলে জানতে পারেন তিনি খুবই মর্মাহত।  এটি তার অনিচ্ছাকৃত ভুল ছিল বলে জানান তিনি। তিনি আরও  বলেন "তবে বরপক্ষ বিয়ে না ভাঙলেও পারত"!  তিনি ওয়াসাকে দুষেছেন এই আপত্তিকর ঘটনার জন্য।


 © তীর্থ